ঢাকা ০৩:১২ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৩ জুলাই ২০২৪, ২৯ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

সদ্যসমাপ্ত অর্থবছরে ইতিহাসের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ রেমিট্যান্স পেল বাংলাদেশ

  • বার্তা কক্ষ
  • আপডেট সময় : ০২:৪৪:২৬ অপরাহ্ন, সোমবার, ১ জুলাই ২০২৪
  • ৩৪ বার পড়া হয়েছে

২০২৩-২৪ অর্থবছরে বাংলাদেশ রেমিট্যান্স পেয়েছে ২৩ দশমিক ৯১৫ বিলিয়ন মার্কিন ডলার, যা এখন পর্যন্ত অর্থবছরের ইতিহাসে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ রেমিট্যান্স।

বাংলাদেশ ব্যাংকের নির্বাহী পরিচালক ও মুখপাত্র মো. মেজবাউল হক ইউএনবিকে বলেন, ২০২৪ সালের জুনে প্রবাসী বাংলাদেশিরা ২ দশমিক ৫৪২ বিলিয়ন ডলার রেমিট্যান্স পাঠিয়েছেন। এর ফলে ২০২৩-২৪ অর্থবছরের ১ জুলাই থেকে ৩০ জুন পর্যন্ত মোট রেমিট্যান্সের পরিমাণ দাঁড়িয়েছে ২৩ দশমিক ৯১৫ বিলিয়ন মার্কিন ডলারে, যা আগের অর্থবছরে ছিল ২১ দশমিক ৬১০ বিলিয়ন ডলার।

গেল ঈদুল আজহায় প্রবাসী শ্রমিকরা দেশে বেশি অর্থ পাঠানোয় জুন মাসে বাংলাদেশে রেমিট্যান্স প্রবাহ ১৫ দশমিক ৫৯ শতাংশ বেড়ে ২ দশমিক ৫৪২ বিলিয়ন ডলারে দাঁড়িয়েছে। এর আগে মে মাসে প্রবাসী কর্মীরা রেমিট্যান্স পাঠিয়েছিলেন ২ দশমিক ২৫৩ বিলিয়ন ডলার।

ডলারের বিনিময় হার বৃদ্ধি ও ঈদুল আজহা উপলক্ষে প্রবাসীরা পরিবারের কাছে অতিরিক্ত অর্থ পাঠানোয় এই প্রবৃদ্ধি বেড়েছে বলে মনে করছেন খাতসংশ্লিষ্টরা।

অর্থনীতিবিদ ড. আহসান এইচ মনসুর বলেন, রেমিট্যান্স প্রদানকারীদের জন্য বৈধ চ্যানেলে আর্থিক ও অ-আর্থিক সুবিধা বাড়ানোর মাধ্যমে বাংলাদেশ আরও বেশি রেমিট্যান্স অর্জন করতে পারে। বিনিময় হারের তারতম্যের কারণে বৈধ রেমিট্যান্সের বদলে অবৈধ হুন্ডিতে টাকা পাঠাচ্ছেন অনেক রেমিট্যান্সকারী।

ট্যাগস :

Write Your Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Save Your Email and Others Information

আপলোডকারীর তথ্য

জনপ্রিয় সংবাদ

সরকার চাইলে কোটা পরিবর্তন করতে পারবে, হাইকোর্টের রায় প্রকাশ

সদ্যসমাপ্ত অর্থবছরে ইতিহাসের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ রেমিট্যান্স পেল বাংলাদেশ

আপডেট সময় : ০২:৪৪:২৬ অপরাহ্ন, সোমবার, ১ জুলাই ২০২৪

২০২৩-২৪ অর্থবছরে বাংলাদেশ রেমিট্যান্স পেয়েছে ২৩ দশমিক ৯১৫ বিলিয়ন মার্কিন ডলার, যা এখন পর্যন্ত অর্থবছরের ইতিহাসে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ রেমিট্যান্স।

বাংলাদেশ ব্যাংকের নির্বাহী পরিচালক ও মুখপাত্র মো. মেজবাউল হক ইউএনবিকে বলেন, ২০২৪ সালের জুনে প্রবাসী বাংলাদেশিরা ২ দশমিক ৫৪২ বিলিয়ন ডলার রেমিট্যান্স পাঠিয়েছেন। এর ফলে ২০২৩-২৪ অর্থবছরের ১ জুলাই থেকে ৩০ জুন পর্যন্ত মোট রেমিট্যান্সের পরিমাণ দাঁড়িয়েছে ২৩ দশমিক ৯১৫ বিলিয়ন মার্কিন ডলারে, যা আগের অর্থবছরে ছিল ২১ দশমিক ৬১০ বিলিয়ন ডলার।

গেল ঈদুল আজহায় প্রবাসী শ্রমিকরা দেশে বেশি অর্থ পাঠানোয় জুন মাসে বাংলাদেশে রেমিট্যান্স প্রবাহ ১৫ দশমিক ৫৯ শতাংশ বেড়ে ২ দশমিক ৫৪২ বিলিয়ন ডলারে দাঁড়িয়েছে। এর আগে মে মাসে প্রবাসী কর্মীরা রেমিট্যান্স পাঠিয়েছিলেন ২ দশমিক ২৫৩ বিলিয়ন ডলার।

ডলারের বিনিময় হার বৃদ্ধি ও ঈদুল আজহা উপলক্ষে প্রবাসীরা পরিবারের কাছে অতিরিক্ত অর্থ পাঠানোয় এই প্রবৃদ্ধি বেড়েছে বলে মনে করছেন খাতসংশ্লিষ্টরা।

অর্থনীতিবিদ ড. আহসান এইচ মনসুর বলেন, রেমিট্যান্স প্রদানকারীদের জন্য বৈধ চ্যানেলে আর্থিক ও অ-আর্থিক সুবিধা বাড়ানোর মাধ্যমে বাংলাদেশ আরও বেশি রেমিট্যান্স অর্জন করতে পারে। বিনিময় হারের তারতম্যের কারণে বৈধ রেমিট্যান্সের বদলে অবৈধ হুন্ডিতে টাকা পাঠাচ্ছেন অনেক রেমিট্যান্সকারী।