ঢাকা ০৪:১৬ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪, ২৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

টাইব্রেকারে ভারতকে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন বাংলাদেশ

  • বার্তা কক্ষ
  • আপডেট সময় : ০৫:০৫:০৪ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ১১ মার্চ ২০২৪
  • ৩৪ বার পড়া হয়েছে

টাইব্রেকারে ভারতকে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন বাংলাদেশ

সাফ অনূর্ধ্ব-১৬ নারী চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনালে ভারতকে টাইব্রেকারে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন হয়েছে বাংলাদেশ। নির্ধারিত সময়ে খেলা ১-১ গোলে সমতায় থাকার পর টাইব্রেকারে ভারতকে ৩-২ গোলে হারিয়েছে বাংলাদেশের মেয়েরা। এদিন তিন সেভে বাংলাদেশের জয়ের নায়ক গোলরক্ষক ইয়ারজান।

রোববার (১০ মার্চ) নেপালের কাঠমান্ডুর আনফা কমপ্লেক্সে ম্যাচের শুরুতে এগিয়ে যায় ভারত। দ্বিতীয়ার্ধে ঘুরে দাঁড়ায় বাংলাদেশ। নির্ধারিত ৯০ মিনিটে খেলা ১-১ গোলের সমতায় শেষ হয়।

টাইব্রেকারের শুরুতে বাংলাদেশের আক্রমণভাগের সেরা তারকা সুরভী আকন্দ প্রীতির দুর্বল শট আটকে দেন প্রতিপক্ষের গোলরক্ষক। ভারত এগিয়ে যায় সবিতা রানীর গোলে। নির্ধারিত সময়ের খেলায় বাংলাদেশকে সমতায় ফেরানো মরিয়ম বিনতে হান্না টাইব্রেকারেও পান জালের দেখা। এরপর ভারতের আলেনা দেবির শট ঝাঁপিয়ে পড়া ইয়ারজানের গ্লাভস ছুঁয়ে পোস্টে লেগে ফিরে আসে। আরেকবার সমতায় ফেরে বাংলাদেশ।

তৃতীয় শটে সতীর্থ থুইনুই মারমার লক্ষ্যভেদের পর বোনিফিলিয়া শুল্লাইয়ের শট ইয়ারজান আটকালে ২-১ ব্যবধানে এগিয়ে যায় বাংলাদেশ। আলপি আক্তারের শটে গোলরক্ষক নড়াচড়ার সুযোগই পাননি। তবে বল পোস্ট কাঁপিয়ে ফিরে আসে। এরপর অনিতার লক্ষ্যভেদে সমতায় ফেরে ভারত।

পঞ্চম শটে লক্ষ্যভেদ করেন সাথী মুন্ডা। তাতে জয়ের আশা জাগে বাংলাদেশের। আর সবশেষে দিবানি লিন্ডার পঞ্চম শট ফিরিয়ে স্বপ্ন সত্যি করেন ইয়ারজান। রাউন্ড রবিন লিগে সেরা হওয়ার পথে ভারতকে ৩-১ গোলে হারিয়েছিল বাংলাদেশ। ফাইনালেও তাদের হারিয়ে অপরাজিত চ্যাম্পিয়ন হলো মেয়েরা।

এর আগে, ম্যাচের শুরুতে চতুর্থ মিনিটে আনুশকা কুমারী গোলে ভারত এগিয়ে যায়। নিজেদের অর্ধ থেকে বোনিফিলিয়ার লম্বা ক্রস অফসাইড ফাঁদ ভেঙে বক্সে ঢুকে লক্ষ্যভেদ করেন আনুশকা। ঝাঁপিয়েও বলের নাগাল পাননি বাংলাদেশের গোলকিপার ইয়ারজান বেগম।

প্রথমার্ধের শেষ দিকে টানা সেটপিস থেকে গোলের চেষ্টা করে বাংলাদেশ। কর্নার থেকে উড়ে আসা বল প্রথমবারের চেষ্টায় ফেরাতে পারেনি ভারতের গোলরক্ষক। কিন্তু জটলার মধ্যে থেকে পরেরবার অবশ্য সেটি বিপদমুক্ত করেন তিনি। দ্বিতীয়ার্ধে ম্যাচে হঠাৎ করেই প্রাণ ফেরায় বাংলাদেশ। বল দখল ও আক্রমণে এগিয়ে থাকে তারা। ৫৮ মিনিটে ভারতের বক্সে সুরভী আকন্দ বল স্পর্শ করার আগে ডিফেন্ডার বিপদমুক্ত করেন। ৭০ মিনিটে সমতায় ফেরা গোলটি পায় সাইফুল বারী টিটুর দল। অনন্যা বীথির কর্নারে ৬ গজের ভেতর থেকে বলে পা ছুঁইয়ে সমতা ফেরান মরিয়ম বিনতে হান্না।

Write Your Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Save Your Email and Others Information

আপলোডকারীর তথ্য

পবিত্র ঈদুল আজহা উদযাপনে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের নির্দেশনা

টাইব্রেকারে ভারতকে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন বাংলাদেশ

আপডেট সময় : ০৫:০৫:০৪ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ১১ মার্চ ২০২৪

সাফ অনূর্ধ্ব-১৬ নারী চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনালে ভারতকে টাইব্রেকারে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন হয়েছে বাংলাদেশ। নির্ধারিত সময়ে খেলা ১-১ গোলে সমতায় থাকার পর টাইব্রেকারে ভারতকে ৩-২ গোলে হারিয়েছে বাংলাদেশের মেয়েরা। এদিন তিন সেভে বাংলাদেশের জয়ের নায়ক গোলরক্ষক ইয়ারজান।

রোববার (১০ মার্চ) নেপালের কাঠমান্ডুর আনফা কমপ্লেক্সে ম্যাচের শুরুতে এগিয়ে যায় ভারত। দ্বিতীয়ার্ধে ঘুরে দাঁড়ায় বাংলাদেশ। নির্ধারিত ৯০ মিনিটে খেলা ১-১ গোলের সমতায় শেষ হয়।

টাইব্রেকারের শুরুতে বাংলাদেশের আক্রমণভাগের সেরা তারকা সুরভী আকন্দ প্রীতির দুর্বল শট আটকে দেন প্রতিপক্ষের গোলরক্ষক। ভারত এগিয়ে যায় সবিতা রানীর গোলে। নির্ধারিত সময়ের খেলায় বাংলাদেশকে সমতায় ফেরানো মরিয়ম বিনতে হান্না টাইব্রেকারেও পান জালের দেখা। এরপর ভারতের আলেনা দেবির শট ঝাঁপিয়ে পড়া ইয়ারজানের গ্লাভস ছুঁয়ে পোস্টে লেগে ফিরে আসে। আরেকবার সমতায় ফেরে বাংলাদেশ।

তৃতীয় শটে সতীর্থ থুইনুই মারমার লক্ষ্যভেদের পর বোনিফিলিয়া শুল্লাইয়ের শট ইয়ারজান আটকালে ২-১ ব্যবধানে এগিয়ে যায় বাংলাদেশ। আলপি আক্তারের শটে গোলরক্ষক নড়াচড়ার সুযোগই পাননি। তবে বল পোস্ট কাঁপিয়ে ফিরে আসে। এরপর অনিতার লক্ষ্যভেদে সমতায় ফেরে ভারত।

পঞ্চম শটে লক্ষ্যভেদ করেন সাথী মুন্ডা। তাতে জয়ের আশা জাগে বাংলাদেশের। আর সবশেষে দিবানি লিন্ডার পঞ্চম শট ফিরিয়ে স্বপ্ন সত্যি করেন ইয়ারজান। রাউন্ড রবিন লিগে সেরা হওয়ার পথে ভারতকে ৩-১ গোলে হারিয়েছিল বাংলাদেশ। ফাইনালেও তাদের হারিয়ে অপরাজিত চ্যাম্পিয়ন হলো মেয়েরা।

এর আগে, ম্যাচের শুরুতে চতুর্থ মিনিটে আনুশকা কুমারী গোলে ভারত এগিয়ে যায়। নিজেদের অর্ধ থেকে বোনিফিলিয়ার লম্বা ক্রস অফসাইড ফাঁদ ভেঙে বক্সে ঢুকে লক্ষ্যভেদ করেন আনুশকা। ঝাঁপিয়েও বলের নাগাল পাননি বাংলাদেশের গোলকিপার ইয়ারজান বেগম।

প্রথমার্ধের শেষ দিকে টানা সেটপিস থেকে গোলের চেষ্টা করে বাংলাদেশ। কর্নার থেকে উড়ে আসা বল প্রথমবারের চেষ্টায় ফেরাতে পারেনি ভারতের গোলরক্ষক। কিন্তু জটলার মধ্যে থেকে পরেরবার অবশ্য সেটি বিপদমুক্ত করেন তিনি। দ্বিতীয়ার্ধে ম্যাচে হঠাৎ করেই প্রাণ ফেরায় বাংলাদেশ। বল দখল ও আক্রমণে এগিয়ে থাকে তারা। ৫৮ মিনিটে ভারতের বক্সে সুরভী আকন্দ বল স্পর্শ করার আগে ডিফেন্ডার বিপদমুক্ত করেন। ৭০ মিনিটে সমতায় ফেরা গোলটি পায় সাইফুল বারী টিটুর দল। অনন্যা বীথির কর্নারে ৬ গজের ভেতর থেকে বলে পা ছুঁইয়ে সমতা ফেরান মরিয়ম বিনতে হান্না।