ঢাকা ০৮:৫৬ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ২২ জুন ২০২৪, ৮ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ইসরায়েলের তীব্র হামলার কারণে রাফা থেকে পালিয়েছে ৮ লাখ লোক : জাতিসংঘ

  • বাসস
  • আপডেট সময় : ০১:৫৫:১৭ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৯ মে ২০২৪
  • ১৩ বার পড়া হয়েছে

 

গাজার দক্ষিণাঞ্চলীয় রাফা শহরে ইসরাইল ও হামসের মধ্যে প্রচণ্ড সংঘর্ষ চলছে। একইসঙ্গে ইসরায়েলের মুহুর্মুহু বোমা হামলায় কেঁপে উঠছে রাফা।

জাতিসংঘ বলছে, ইসরায়েলের হামলার কারণে রাফা থেকে পালাতে বাধ্য হয়েছে আট লাখ লোক।

ইসরায়েলের সামরিক বাহিনী বলছে, তারা শনিবার রাফায় ৭০টিরও বেশি লক্ষ্যবস্তুতে হামলা চালিয়েছে। একইসঙ্গে স্থল সৈন্যরাও সুনির্দিষ্ট অভিযান চালিয়েছে। এসব হামলায় অন্তত ৫০ জন নিহত হয়েছে এবং ইসরায়েলি বাহিনী কয়েকডজন টানেল শনাক্ত করেছে।

ফিলিস্তিন বিষয়ক জাতিসংঘের শরণার্থী সংস্থার প্রধান ফিলিপ লাজ্জারানি বলেছেন, রাফায় ইসরায়েলের হামলা শুরুর পর থেকে ব্যাপকহারে লোকজন পালাতে শুরু করেছে।

তিনি বলেছেন, গত ৬ মে রাফায় ইসরায়েলের সামরিক অভিযান শুরুর পর থেকে আট হাজার লোক পালাতে বাধ্য হয়েছে।

লাজ্জারানি আরো বলেন, তারা যেসব এলাকায় পালাতে বাধ্য হয়েছে সেখানে পর্যাপ্ত পানি ও স্যানিটেশন সুবিধা নেই।

এদিকে ইসরায়েলি সেনাবাহিনী শনিবার উত্তর গাজার কিছু এলাকা থেকে নতুন করে লোকজনকে সরে যাওয়ার নির্দেশ দিয়েছে।

ইসরায়েল দাবি করছে এসব এলাকা থেকে উগ্রবাদীরা রকেট হামলা চালাচ্ছে।

যদিও জানুয়ারির প্রথম দিকে ইসরায়েল উত্তর গাজায় হামাসের কমান্ড সেন্টার ভেঙে দেয়ার দাবি করেছিল। কিন্তু এখন ইসরায়েল বলছে, জাবালিয়ায় আমরা না আসা পর্যন্ত তা হামাসের পূর্ণ নিয়ন্ত্রণে ছিল।

উল্লেখ্য, গত বছরের ৭ অক্টোবর হামাস ইসরাইলে আকস্মিক হামলা চালায়। ওইদিনই ইসরাইল গাজায় প্রতিশোধমূলক পাল্টা হামলা শুরু করে। অব্যাহত এ হামলায় এ পর্যন্ত ৩৫ হাজারেরও বেশি ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছে।

ট্যাগস :

Write Your Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Save Your Email and Others Information

আপলোডকারীর তথ্য

সাতক্ষীরায় যুব কর্মসংস্থান সৃষ্টিতে স্থানীয় কারিগরি ও বৃত্তিমুলক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ভূমিকা শীর্ষক সংলাপ

ইসরায়েলের তীব্র হামলার কারণে রাফা থেকে পালিয়েছে ৮ লাখ লোক : জাতিসংঘ

আপডেট সময় : ০১:৫৫:১৭ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৯ মে ২০২৪

 

গাজার দক্ষিণাঞ্চলীয় রাফা শহরে ইসরাইল ও হামসের মধ্যে প্রচণ্ড সংঘর্ষ চলছে। একইসঙ্গে ইসরায়েলের মুহুর্মুহু বোমা হামলায় কেঁপে উঠছে রাফা।

জাতিসংঘ বলছে, ইসরায়েলের হামলার কারণে রাফা থেকে পালাতে বাধ্য হয়েছে আট লাখ লোক।

ইসরায়েলের সামরিক বাহিনী বলছে, তারা শনিবার রাফায় ৭০টিরও বেশি লক্ষ্যবস্তুতে হামলা চালিয়েছে। একইসঙ্গে স্থল সৈন্যরাও সুনির্দিষ্ট অভিযান চালিয়েছে। এসব হামলায় অন্তত ৫০ জন নিহত হয়েছে এবং ইসরায়েলি বাহিনী কয়েকডজন টানেল শনাক্ত করেছে।

ফিলিস্তিন বিষয়ক জাতিসংঘের শরণার্থী সংস্থার প্রধান ফিলিপ লাজ্জারানি বলেছেন, রাফায় ইসরায়েলের হামলা শুরুর পর থেকে ব্যাপকহারে লোকজন পালাতে শুরু করেছে।

তিনি বলেছেন, গত ৬ মে রাফায় ইসরায়েলের সামরিক অভিযান শুরুর পর থেকে আট হাজার লোক পালাতে বাধ্য হয়েছে।

লাজ্জারানি আরো বলেন, তারা যেসব এলাকায় পালাতে বাধ্য হয়েছে সেখানে পর্যাপ্ত পানি ও স্যানিটেশন সুবিধা নেই।

এদিকে ইসরায়েলি সেনাবাহিনী শনিবার উত্তর গাজার কিছু এলাকা থেকে নতুন করে লোকজনকে সরে যাওয়ার নির্দেশ দিয়েছে।

ইসরায়েল দাবি করছে এসব এলাকা থেকে উগ্রবাদীরা রকেট হামলা চালাচ্ছে।

যদিও জানুয়ারির প্রথম দিকে ইসরায়েল উত্তর গাজায় হামাসের কমান্ড সেন্টার ভেঙে দেয়ার দাবি করেছিল। কিন্তু এখন ইসরায়েল বলছে, জাবালিয়ায় আমরা না আসা পর্যন্ত তা হামাসের পূর্ণ নিয়ন্ত্রণে ছিল।

উল্লেখ্য, গত বছরের ৭ অক্টোবর হামাস ইসরাইলে আকস্মিক হামলা চালায়। ওইদিনই ইসরাইল গাজায় প্রতিশোধমূলক পাল্টা হামলা শুরু করে। অব্যাহত এ হামলায় এ পর্যন্ত ৩৫ হাজারেরও বেশি ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছে।