ঢাকা ০৩:৪৭ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৩ জুলাই ২০২৪, ২৯ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

তাসকিনের ঘুম-কাণ্ড, যা বললেন সাকিব

  • বার্তা কক্ষ
  • আপডেট সময় : ০৩:৩১:৩৫ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২ জুলাই ২০২৪
  • ১১ বার পড়া হয়েছে

 

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ শেষ হয়েছে দিন তিনেক আগেই। বাংলাদেশের জন্য বিশ্বকাপ পর্বের ইতি ঘটেছে তারও আগে। সুপার এইটের ম্যাচেই টানা তিন হারে বিশ্বকাপকে বিদায় জানিয়েছিল টিম বাংলাদেশ। তবে বিশ্বকাপের এত দিন পর নতুন করে উঠেছে বিতর্ক। তাসকিন আহমেদ ঘুমের জন্য মিস করেছিলেন ভারতের বিপক্ষে মহাগুরুত্বপূর্ণ ম্যাচ। আর তা নিয়েই এখন সরব দেশের ক্রিকেটপাড়া।

তাসকিনের এমন কাণ্ড নিয়ে এবার মুখ খুললেন সাবেক অধিনায়ক সাকিব আল হাসান। আজ মঙ্গলবার মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের উদ্দেশে দেশ ছাড়ার আগে বিমানবন্দরে গণমাধ্যমের মুখোমুখি হন টাইগার এই অলরাউন্ডার। এরপর জানান সেদিন আসলে কী হয়েছিল।

তাসকিন কেন সেদিন ছিলেন না এর ব্যাখ্যায় সাকিব জানান, ‘টিমের বাস তো একটা (নির্দিষ্ট) সময়ে ছাড়ে। ক্রিকেটে আমরা যারা প্লেয়ার আছি তাদের একটা রুলস, নরমালি বাস কখনোই অপেক্ষা করে না। কেউ হয়ত এরকম মিস করে তারা হয়ত পরে গাড়ি নিয়ে আসে বা ম্যানেজারের গাড়ি থাকে বা ট্যাক্সি থাকে। ওয়েস্ট ইন্ডিজ যেহেতু একটা ডিফিকাল্ট জায়গা, সেখানে পরিবহনের সাপোর্ট অনেক কঠিন ছিল। যখন তাসকিন পৌঁছে মাঠে, তখন অলমোস্ট টস হওয়ার ৫-১০ মিনিট আগে। ম্যাচের খুব কাছাকাছি সময়ে।’

সাকিব এরপর যোগ করেন, ‘স্বাভাবিকভাবে ওই সময়ে কঠিন ছিল টিম ম্যানেজমেন্টের জন্য সিলেক্ট করা ওকে। কোন অবস্থাতে থাকে এরকম পরিস্থিতিতে একজন খেলোয়াড়, তার জন্যেও বিষয়টা কঠিন।’

ম্যাচের পর তাসকিন দলের কাছে ক্ষমা চেয়েছেন বলেও জানিয়েছেন সাকিব আল হাসান। বিষয়টি সেখানেই শেষ হয়ে গেছে এমনটাও জানালেন বাংলাদেশের এই তারকা, ‘স্বাভাবিকভাবে তাসকিন পরে পুরো দলের কাছে ক্ষমা চেয়েছে। সবাই বিষয়টা স্বাভাবিকভাবে নিয়েছে। মানুষের ক্ষেত্রে ভুল হতেই পারে, অনেক সময় না চাইতেও ভুল হয়। এই ভুল সবারই হয়ে থাকে। সে বিষয়টা স্বীকার করেছে এবং তারপর ওখানে শেষ হয়ে গেছে।’

অবশ্য এমন কাণ্ডের জন্য টিম ম্যানেজমেন্টকে দায়ী করতে রাজি নন অভিজ্ঞ এই ক্রিকেটার। দলের নিয়মের কথা জানিয়ে তিনি উল্লেখ করেন, টিম বাস কখনোই কারো জন্য অপেক্ষা করার পক্ষে না, ‘দেখুন এই বিষয়টা এভাবে হয় না। নিয়মে এগুলো নাই যে, ঘর থেকে ডেকে নিয়ে আসবে। কিংবা দল ওয়েট করবে। দল কখনোই ওয়েট করবে না, এটা কোথাও হয় না। আমরা যখন এইজ লেভেল থেকে খেলে আসছি, আমাদের এমনও মনে আছে, প্লেয়ার পেছনে দৌড়াচ্ছে বাসের দরজা লেগে গেছে, বাস চলে যাচ্ছে। বাস কখনো থামে না। একজনের জন্য পুরো দল থেমে থাকে না।’

বাংলাদেশের ক্রিকেটে দলের আভ্যন্তরীণ সমস্যা গণমাধ্যমের সামনে প্রকাশের রীতি চলছে অনেকগুলো দিন ধরে। তাসকিনের ঘুম-কাণ্ডটাও প্রকাশ্যে এসেছে বিসিবি কর্তাদের সূত্র ধরে। দলের ভেতরের এমন খবর বাইরে প্রকাশ করা কতখানি যৌক্তিক তা নিয়েও প্রশ্নের সামনে পড়েছিলেন সাকিব আল হাসান।

যদিও অভিজ্ঞ এই ক্রিকেটার পুরো বিষয়টিকে নিয়েছেন স্বাভাবিকভাবেই। তার মতে, তাসকিনের খেলা বা না খেলা নিয়ে ব্যাখ্যা করতে গিয়েই এমন কিছু হতে পারে।

সাকিবের ভাষ্য, আমি জানি না এটা কেন হয়েছে, কোনো ব্যাখ্যা দিতে গিয়ে হয়েছে কি না। জানিনা যে কি কারণে তাসকিন খেলে নাই। কারণ সে তো টিমের ভাইস ক্যাপ্টেন, বলতে গেলে দলের অটোম্যাটিক চয়েস। যখন সে না খেলবে তখন স্বাভাবিকভাবে মানুষের মনে প্রশ্ন আসবে। ব্যাখ্যা তো দিতে হবে। এখন সে কারণে বলেছে কিনা, যেইই বলেছে তা তো বলতে পারব না।

ট্যাগস :

Write Your Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Save Your Email and Others Information

আপলোডকারীর তথ্য

জনপ্রিয় সংবাদ

সরকার চাইলে কোটা পরিবর্তন করতে পারবে, হাইকোর্টের রায় প্রকাশ

তাসকিনের ঘুম-কাণ্ড, যা বললেন সাকিব

আপডেট সময় : ০৩:৩১:৩৫ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২ জুলাই ২০২৪

 

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ শেষ হয়েছে দিন তিনেক আগেই। বাংলাদেশের জন্য বিশ্বকাপ পর্বের ইতি ঘটেছে তারও আগে। সুপার এইটের ম্যাচেই টানা তিন হারে বিশ্বকাপকে বিদায় জানিয়েছিল টিম বাংলাদেশ। তবে বিশ্বকাপের এত দিন পর নতুন করে উঠেছে বিতর্ক। তাসকিন আহমেদ ঘুমের জন্য মিস করেছিলেন ভারতের বিপক্ষে মহাগুরুত্বপূর্ণ ম্যাচ। আর তা নিয়েই এখন সরব দেশের ক্রিকেটপাড়া।

তাসকিনের এমন কাণ্ড নিয়ে এবার মুখ খুললেন সাবেক অধিনায়ক সাকিব আল হাসান। আজ মঙ্গলবার মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের উদ্দেশে দেশ ছাড়ার আগে বিমানবন্দরে গণমাধ্যমের মুখোমুখি হন টাইগার এই অলরাউন্ডার। এরপর জানান সেদিন আসলে কী হয়েছিল।

তাসকিন কেন সেদিন ছিলেন না এর ব্যাখ্যায় সাকিব জানান, ‘টিমের বাস তো একটা (নির্দিষ্ট) সময়ে ছাড়ে। ক্রিকেটে আমরা যারা প্লেয়ার আছি তাদের একটা রুলস, নরমালি বাস কখনোই অপেক্ষা করে না। কেউ হয়ত এরকম মিস করে তারা হয়ত পরে গাড়ি নিয়ে আসে বা ম্যানেজারের গাড়ি থাকে বা ট্যাক্সি থাকে। ওয়েস্ট ইন্ডিজ যেহেতু একটা ডিফিকাল্ট জায়গা, সেখানে পরিবহনের সাপোর্ট অনেক কঠিন ছিল। যখন তাসকিন পৌঁছে মাঠে, তখন অলমোস্ট টস হওয়ার ৫-১০ মিনিট আগে। ম্যাচের খুব কাছাকাছি সময়ে।’

সাকিব এরপর যোগ করেন, ‘স্বাভাবিকভাবে ওই সময়ে কঠিন ছিল টিম ম্যানেজমেন্টের জন্য সিলেক্ট করা ওকে। কোন অবস্থাতে থাকে এরকম পরিস্থিতিতে একজন খেলোয়াড়, তার জন্যেও বিষয়টা কঠিন।’

ম্যাচের পর তাসকিন দলের কাছে ক্ষমা চেয়েছেন বলেও জানিয়েছেন সাকিব আল হাসান। বিষয়টি সেখানেই শেষ হয়ে গেছে এমনটাও জানালেন বাংলাদেশের এই তারকা, ‘স্বাভাবিকভাবে তাসকিন পরে পুরো দলের কাছে ক্ষমা চেয়েছে। সবাই বিষয়টা স্বাভাবিকভাবে নিয়েছে। মানুষের ক্ষেত্রে ভুল হতেই পারে, অনেক সময় না চাইতেও ভুল হয়। এই ভুল সবারই হয়ে থাকে। সে বিষয়টা স্বীকার করেছে এবং তারপর ওখানে শেষ হয়ে গেছে।’

অবশ্য এমন কাণ্ডের জন্য টিম ম্যানেজমেন্টকে দায়ী করতে রাজি নন অভিজ্ঞ এই ক্রিকেটার। দলের নিয়মের কথা জানিয়ে তিনি উল্লেখ করেন, টিম বাস কখনোই কারো জন্য অপেক্ষা করার পক্ষে না, ‘দেখুন এই বিষয়টা এভাবে হয় না। নিয়মে এগুলো নাই যে, ঘর থেকে ডেকে নিয়ে আসবে। কিংবা দল ওয়েট করবে। দল কখনোই ওয়েট করবে না, এটা কোথাও হয় না। আমরা যখন এইজ লেভেল থেকে খেলে আসছি, আমাদের এমনও মনে আছে, প্লেয়ার পেছনে দৌড়াচ্ছে বাসের দরজা লেগে গেছে, বাস চলে যাচ্ছে। বাস কখনো থামে না। একজনের জন্য পুরো দল থেমে থাকে না।’

বাংলাদেশের ক্রিকেটে দলের আভ্যন্তরীণ সমস্যা গণমাধ্যমের সামনে প্রকাশের রীতি চলছে অনেকগুলো দিন ধরে। তাসকিনের ঘুম-কাণ্ডটাও প্রকাশ্যে এসেছে বিসিবি কর্তাদের সূত্র ধরে। দলের ভেতরের এমন খবর বাইরে প্রকাশ করা কতখানি যৌক্তিক তা নিয়েও প্রশ্নের সামনে পড়েছিলেন সাকিব আল হাসান।

যদিও অভিজ্ঞ এই ক্রিকেটার পুরো বিষয়টিকে নিয়েছেন স্বাভাবিকভাবেই। তার মতে, তাসকিনের খেলা বা না খেলা নিয়ে ব্যাখ্যা করতে গিয়েই এমন কিছু হতে পারে।

সাকিবের ভাষ্য, আমি জানি না এটা কেন হয়েছে, কোনো ব্যাখ্যা দিতে গিয়ে হয়েছে কি না। জানিনা যে কি কারণে তাসকিন খেলে নাই। কারণ সে তো টিমের ভাইস ক্যাপ্টেন, বলতে গেলে দলের অটোম্যাটিক চয়েস। যখন সে না খেলবে তখন স্বাভাবিকভাবে মানুষের মনে প্রশ্ন আসবে। ব্যাখ্যা তো দিতে হবে। এখন সে কারণে বলেছে কিনা, যেইই বলেছে তা তো বলতে পারব না।