ঢাকা ০৩:২০ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৩ জুলাই ২০২৪, ২৯ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

সুপার এইটে উঠতে পাকিস্তান, শ্রীলঙ্কা, নিউজিল্যান্ড ও ইংল্যান্ডের সামনে যে সমীকরণ

  • বার্তা কক্ষ
  • আপডেট সময় : ০৪:৫৫:০৭ অপরাহ্ন, বুধবার, ১২ জুন ২০২৪
  • ৩০ বার পড়া হয়েছে

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ ২০২৪ একটা মজাদার মোড়ে এসে দাঁড়িয়েছে, যেখান থেকে বাদ পড়ে যেতে পারে টেস্ট খেলুড়ে অন্তত ৫টি দল। যার মধ্যে বাংলাদেশ ছাড়াও আছে বর্তমান চ্যাম্পিয়ন দল ইংল্যান্ড, বর্তমান রানার আপ পাকিস্তান, নিউজিল্যান্ড এবং শ্রীলঙ্কার মতো দল।

পাকিস্তান আমেরিকার বিপক্ষে হারের পর আছে বিপাকে, ইংল্যান্ডের বিপক্ষে স্কটল্যান্ডের ম্যাচ বৃষ্টিতে ভেসে গিয়েছিল, নিউজিল্যান্ড আফগানিস্তানের বিপক্ষে একেবারেই দাঁড়াতে পারেনি, আর শ্রীলঙ্কা টানা দুই ম্যাচ হেরেছে আর একটি বৃষ্টিতে ভেসে গেছে। এখন কোন গ্রুপের জন্য কী সমীকরণ?

পাকিস্তানের যা করতে হবে
কানাডার বিপক্ষে ১৫ বল হাতে রেখে পাকিস্তানের সহজ জয় নিশ্চিতভাবেই বাবর আজমদের পরের রাউন্ডে যাওয়ার আশা টিকিয়ে রেখেছে।

যদিও পাকিস্তানকে এখন অন্য ম্যাচগুলোর দিকেও তাকিয়ে থাকতে হবে।

পাকিস্তানের নেট রান রেট এখন ০.১৯১। যুক্তরাষ্ট্র যদি বাকি দুই ম্যাচে হারে এবং পাকিস্তান যদি আয়ারল্যান্ডকে হারিয়ে দেয়, তাহলে এই গ্রুপ থেকে ভারত ও পাকিস্তান পরের রাউন্ডে যাবে।

পাকিস্তানের ক্রিকেট পরিসংখ্যানবিদ মাজহার আরশাদ সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম এক্সে লিখেছেন, ‘পাকিস্তান যদি কানাডার বিপক্ষে ১৪ ওভারের মধ্যে জিততো তবে তারা ইউএসএ এর ওপরে চলে যেত নেট রান রেটে।’

কিন্তু শুধুমাত্র নেট রান রেটে ওপরে গেলেই হবে না এখন। যেহেতু পাকিস্তান দুই ম্যাচে হেরে গেছে, তাই এখন পাকিস্তানকে আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে জিততে হবে এবং তাকিয়ে থাকতে হবে আমেরিকা যাতে অবশিষ্ট দুই ম্যাচে হেরে যায়। গ্রুপ পর্বে আমেরিকার শেষ দুই ম্যাচ ভারত ও আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে।

পাকিস্তান ও আমেরিকার মধ্যকার নেট রান রেটের পার্থক্য খুবই সূক্ষ্ম। আমেরিকা যদি শেষ দুই ম্যাচ মোট ১০ রানের ব্যবধানে হেরে যায়, সেক্ষেত্রে পাকিস্তান আগে ব্যাট করে ১১২ রান তুলে যেকোনো ব্যবধানে জিতলেই পরের রাউন্ডে উত্তীর্ণ হবে।

কিন্তু পাকিস্তানের জন্য আরো দুশ্চিন্তার কারণ হতে পারে আবহাওয়া। লডারহিলে পুরো সপ্তাহ জুড়েই বৃষ্টির সম্ভাবনা দেখা যাচ্ছে, যেখানে আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে পাকিস্তানের ম্যাচ আছে।

এখন যদি আমেরিকা এক পয়েন্ট পায় এবং পাকিস্তান কোনোভাবে এক পয়েন্ট হারিয়ে ফেলে, তাহলেই আমেরিকা উঠে যাবে, পাকিস্তান বিশ্বকাপ থেকে বিদায় নেবে।

বিশাল ব্যবধানে জিততে হবে ইংল্যান্ডকে
গ্রুপ বি-তে অস্ট্রেলিয়া খুব অনায়াসেই সুপার এইটে জায়গা করে নিয়েছে, ওমান, ইংল্যান্ড ও নামিবিয়াকে হারাতে তাদের কোনো কষ্টই হয়নি।

নামিবিয়ার বিপক্ষে ৭২ রান তাড়া করতে অস্ট্রেলিয়ার টপ অর্ডার মাত্র ৩৪ বল খরচ করেছে।

আর টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের বর্তমান চ্যাম্পিয়ন ইংল্যান্ড যেন পাকিস্তানের মতোই জটিল এক মোড়ে দাঁড়িয়ে আছে, স্কটল্যান্ডের সাথে তাদের প্রথম ম্যাচ বৃষ্টিতে ভেসে গেছে, অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে বড় ব্যবধানে হেরেছে ইংল্যান্ড।

ইংল্যান্ডের জন্য নেট রান রেটের সমীকরণটা আরো কঠিন। শেষ দুটি ম্যাচ নামিবিয়া ও ওমানের বিপক্ষে তো জিততেই হবে, স্কটল্যান্ডকে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে অন্তত ২০ রানে হারতে হবে, সাথে ইংল্যান্ডকে নেট রান রেট বাড়িয়ে নিতে হবে অনেক।

স্কটল্যান্ড ওমানের বিপক্ষে ৪১ বল হাতে রেখে জয় তুলে নিয়ে নেট রান রেট তুলেছে ২.১৬৪।

আর ইংল্যান্ড আছে মাইনাসে, -১.৮।

অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ইংল্যান্ড যদি ২০ রানে হারে, সেক্ষেত্রে নামিবিয়া ও ওমানের বিপক্ষে দুই ম্যাচ মিলিয়ে ইংল্যান্ডকে অন্তত ৯৪ রানে জিততে হবে।

ইংল্যান্ডকেও ভালো আবহাওয়ার দিকে তাকিয়ে থাকতে হবে। কারণ আর একটি ম্যাচ বৃষ্টির কারণে পরিত্যক্ত হলেই ইংল্যান্ড বাদ পড়ে যাবে।

শ্রীলঙ্কা দুই হারের ধকল কাটাতে পারবে?
শ্রীলঙ্কা বিশ্বকাপ শুরু করেছে দক্ষিণ আফ্রিকা ও বাংলাদেশের বিপক্ষে হার দিয়ে, এরপর নেপালের বিপক্ষে ফ্লোরিডার লডারহিলের ম্যাচটা ভেসে গিয়েছে বৃষ্টিতে।

শ্রীলঙ্কা যদি নেদারল্যান্ডসের বিপক্ষে জয় পায়, তবে সর্বোচ্চ ৩ পয়েন্ট নিয়ে গ্রুপ পর্ব শেষ করবে দলটি।

যেখানে বাংলাদেশ ও নেদারল্যান্ডসের এখনো দুই ম্যাচ বাকি এবং ইতোমধ্যে দুই পয়েন্ট আছে দুটি দলেরই।

বৃহস্পতিবার রাতে কিংসটাউনে মুখোমুখি হবে বাংলাদেশ ও নেদারল্যান্ডস। এই ম্যাচটা যদি বৃষ্টির কারণে পরিত্যক্ত হয় তাহলেই শ্রীলঙ্কার কিছুটা আশা থাকবে।

আর নেদারল্যান্ডস বা বাংলাদেশ যেকোনো দল যদি জয় পায়, তাহলে শ্রীলঙ্কা বাদ।

এরপরে দক্ষিণ আফ্রিকা যদি নেপালকে হারায়, আর নেপাল বাংলাদেশকে হারিয়ে দেয় তাহলে শ্রীলঙ্কার আশা থাকবে।

আর শেষ ম্যাচে নেদারল্যান্ডসের বিপক্ষে জয় লাগবে শ্রীলঙ্কার।

বোঝাই যাচ্ছে খুবই জটিল পরিস্থিতি। কাগজে কলমে না হলেও শ্রীলঙ্কা একরকম বাদ ধরে নেয়া হচ্ছে।

নিউজিল্যান্ডকে কী করতে হবে?
আফগানিস্তানের বিপক্ষে হারটা নিউজিল্যান্ডকে ভোগাচ্ছে। ৮৪ রানের হারে নিউজিল্যান্ডের নেট রান রেট নেমে গেছে অনেক, মাইনাস ৪.২।

আর আফগানিস্তানের নেট রান রেট এখন টুর্নামেন্টের সর্বোচ্চ ৫.২২৫।

দুই ম্যাচে মোট ২০৯ রানের জয় তুলে নিয়েছে আফগানিস্তান।

আফগানিস্তান, ওয়েস্ট ইন্ডিজ দুই দলই উগান্ডাকে ১২০ রানের বেশি ব্যবধানে হারিয়েছে।

নিউজিল্যান্ডকেও একই কাজ করতে হবে, কিন্তু তার আগে বুধবার ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে নিউজিল্যান্ডকে জিততে হবেই, এটা আপাত দৃষ্টিতে একটা নক আউট ম্যাচ।

এই ম্যাচে জয় পেলে ওয়েস্ট ইন্ডিজ ছয় পয়েন্ট পেয়ে উঠে যাবে পরে পরের রাউন্ডে।

আর পাপুয়া নিউগিনির বিপক্ষে জয় পেলেই পরের রাউন্ডে খেলবে আফগানিস্তান।

সেক্ষেত্রে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে উগান্ডা ও পাপুয়া নিউ গিনির ম্যাচের আর কোনো গুরুত্ব থাকবে না। সূত্র : বিবিসি

ট্যাগস :

Write Your Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Save Your Email and Others Information

আপলোডকারীর তথ্য

জনপ্রিয় সংবাদ

সরকার চাইলে কোটা পরিবর্তন করতে পারবে, হাইকোর্টের রায় প্রকাশ

সুপার এইটে উঠতে পাকিস্তান, শ্রীলঙ্কা, নিউজিল্যান্ড ও ইংল্যান্ডের সামনে যে সমীকরণ

আপডেট সময় : ০৪:৫৫:০৭ অপরাহ্ন, বুধবার, ১২ জুন ২০২৪

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ ২০২৪ একটা মজাদার মোড়ে এসে দাঁড়িয়েছে, যেখান থেকে বাদ পড়ে যেতে পারে টেস্ট খেলুড়ে অন্তত ৫টি দল। যার মধ্যে বাংলাদেশ ছাড়াও আছে বর্তমান চ্যাম্পিয়ন দল ইংল্যান্ড, বর্তমান রানার আপ পাকিস্তান, নিউজিল্যান্ড এবং শ্রীলঙ্কার মতো দল।

পাকিস্তান আমেরিকার বিপক্ষে হারের পর আছে বিপাকে, ইংল্যান্ডের বিপক্ষে স্কটল্যান্ডের ম্যাচ বৃষ্টিতে ভেসে গিয়েছিল, নিউজিল্যান্ড আফগানিস্তানের বিপক্ষে একেবারেই দাঁড়াতে পারেনি, আর শ্রীলঙ্কা টানা দুই ম্যাচ হেরেছে আর একটি বৃষ্টিতে ভেসে গেছে। এখন কোন গ্রুপের জন্য কী সমীকরণ?

পাকিস্তানের যা করতে হবে
কানাডার বিপক্ষে ১৫ বল হাতে রেখে পাকিস্তানের সহজ জয় নিশ্চিতভাবেই বাবর আজমদের পরের রাউন্ডে যাওয়ার আশা টিকিয়ে রেখেছে।

যদিও পাকিস্তানকে এখন অন্য ম্যাচগুলোর দিকেও তাকিয়ে থাকতে হবে।

পাকিস্তানের নেট রান রেট এখন ০.১৯১। যুক্তরাষ্ট্র যদি বাকি দুই ম্যাচে হারে এবং পাকিস্তান যদি আয়ারল্যান্ডকে হারিয়ে দেয়, তাহলে এই গ্রুপ থেকে ভারত ও পাকিস্তান পরের রাউন্ডে যাবে।

পাকিস্তানের ক্রিকেট পরিসংখ্যানবিদ মাজহার আরশাদ সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম এক্সে লিখেছেন, ‘পাকিস্তান যদি কানাডার বিপক্ষে ১৪ ওভারের মধ্যে জিততো তবে তারা ইউএসএ এর ওপরে চলে যেত নেট রান রেটে।’

কিন্তু শুধুমাত্র নেট রান রেটে ওপরে গেলেই হবে না এখন। যেহেতু পাকিস্তান দুই ম্যাচে হেরে গেছে, তাই এখন পাকিস্তানকে আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে জিততে হবে এবং তাকিয়ে থাকতে হবে আমেরিকা যাতে অবশিষ্ট দুই ম্যাচে হেরে যায়। গ্রুপ পর্বে আমেরিকার শেষ দুই ম্যাচ ভারত ও আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে।

পাকিস্তান ও আমেরিকার মধ্যকার নেট রান রেটের পার্থক্য খুবই সূক্ষ্ম। আমেরিকা যদি শেষ দুই ম্যাচ মোট ১০ রানের ব্যবধানে হেরে যায়, সেক্ষেত্রে পাকিস্তান আগে ব্যাট করে ১১২ রান তুলে যেকোনো ব্যবধানে জিতলেই পরের রাউন্ডে উত্তীর্ণ হবে।

কিন্তু পাকিস্তানের জন্য আরো দুশ্চিন্তার কারণ হতে পারে আবহাওয়া। লডারহিলে পুরো সপ্তাহ জুড়েই বৃষ্টির সম্ভাবনা দেখা যাচ্ছে, যেখানে আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে পাকিস্তানের ম্যাচ আছে।

এখন যদি আমেরিকা এক পয়েন্ট পায় এবং পাকিস্তান কোনোভাবে এক পয়েন্ট হারিয়ে ফেলে, তাহলেই আমেরিকা উঠে যাবে, পাকিস্তান বিশ্বকাপ থেকে বিদায় নেবে।

বিশাল ব্যবধানে জিততে হবে ইংল্যান্ডকে
গ্রুপ বি-তে অস্ট্রেলিয়া খুব অনায়াসেই সুপার এইটে জায়গা করে নিয়েছে, ওমান, ইংল্যান্ড ও নামিবিয়াকে হারাতে তাদের কোনো কষ্টই হয়নি।

নামিবিয়ার বিপক্ষে ৭২ রান তাড়া করতে অস্ট্রেলিয়ার টপ অর্ডার মাত্র ৩৪ বল খরচ করেছে।

আর টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের বর্তমান চ্যাম্পিয়ন ইংল্যান্ড যেন পাকিস্তানের মতোই জটিল এক মোড়ে দাঁড়িয়ে আছে, স্কটল্যান্ডের সাথে তাদের প্রথম ম্যাচ বৃষ্টিতে ভেসে গেছে, অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে বড় ব্যবধানে হেরেছে ইংল্যান্ড।

ইংল্যান্ডের জন্য নেট রান রেটের সমীকরণটা আরো কঠিন। শেষ দুটি ম্যাচ নামিবিয়া ও ওমানের বিপক্ষে তো জিততেই হবে, স্কটল্যান্ডকে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে অন্তত ২০ রানে হারতে হবে, সাথে ইংল্যান্ডকে নেট রান রেট বাড়িয়ে নিতে হবে অনেক।

স্কটল্যান্ড ওমানের বিপক্ষে ৪১ বল হাতে রেখে জয় তুলে নিয়ে নেট রান রেট তুলেছে ২.১৬৪।

আর ইংল্যান্ড আছে মাইনাসে, -১.৮।

অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ইংল্যান্ড যদি ২০ রানে হারে, সেক্ষেত্রে নামিবিয়া ও ওমানের বিপক্ষে দুই ম্যাচ মিলিয়ে ইংল্যান্ডকে অন্তত ৯৪ রানে জিততে হবে।

ইংল্যান্ডকেও ভালো আবহাওয়ার দিকে তাকিয়ে থাকতে হবে। কারণ আর একটি ম্যাচ বৃষ্টির কারণে পরিত্যক্ত হলেই ইংল্যান্ড বাদ পড়ে যাবে।

শ্রীলঙ্কা দুই হারের ধকল কাটাতে পারবে?
শ্রীলঙ্কা বিশ্বকাপ শুরু করেছে দক্ষিণ আফ্রিকা ও বাংলাদেশের বিপক্ষে হার দিয়ে, এরপর নেপালের বিপক্ষে ফ্লোরিডার লডারহিলের ম্যাচটা ভেসে গিয়েছে বৃষ্টিতে।

শ্রীলঙ্কা যদি নেদারল্যান্ডসের বিপক্ষে জয় পায়, তবে সর্বোচ্চ ৩ পয়েন্ট নিয়ে গ্রুপ পর্ব শেষ করবে দলটি।

যেখানে বাংলাদেশ ও নেদারল্যান্ডসের এখনো দুই ম্যাচ বাকি এবং ইতোমধ্যে দুই পয়েন্ট আছে দুটি দলেরই।

বৃহস্পতিবার রাতে কিংসটাউনে মুখোমুখি হবে বাংলাদেশ ও নেদারল্যান্ডস। এই ম্যাচটা যদি বৃষ্টির কারণে পরিত্যক্ত হয় তাহলেই শ্রীলঙ্কার কিছুটা আশা থাকবে।

আর নেদারল্যান্ডস বা বাংলাদেশ যেকোনো দল যদি জয় পায়, তাহলে শ্রীলঙ্কা বাদ।

এরপরে দক্ষিণ আফ্রিকা যদি নেপালকে হারায়, আর নেপাল বাংলাদেশকে হারিয়ে দেয় তাহলে শ্রীলঙ্কার আশা থাকবে।

আর শেষ ম্যাচে নেদারল্যান্ডসের বিপক্ষে জয় লাগবে শ্রীলঙ্কার।

বোঝাই যাচ্ছে খুবই জটিল পরিস্থিতি। কাগজে কলমে না হলেও শ্রীলঙ্কা একরকম বাদ ধরে নেয়া হচ্ছে।

নিউজিল্যান্ডকে কী করতে হবে?
আফগানিস্তানের বিপক্ষে হারটা নিউজিল্যান্ডকে ভোগাচ্ছে। ৮৪ রানের হারে নিউজিল্যান্ডের নেট রান রেট নেমে গেছে অনেক, মাইনাস ৪.২।

আর আফগানিস্তানের নেট রান রেট এখন টুর্নামেন্টের সর্বোচ্চ ৫.২২৫।

দুই ম্যাচে মোট ২০৯ রানের জয় তুলে নিয়েছে আফগানিস্তান।

আফগানিস্তান, ওয়েস্ট ইন্ডিজ দুই দলই উগান্ডাকে ১২০ রানের বেশি ব্যবধানে হারিয়েছে।

নিউজিল্যান্ডকেও একই কাজ করতে হবে, কিন্তু তার আগে বুধবার ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে নিউজিল্যান্ডকে জিততে হবেই, এটা আপাত দৃষ্টিতে একটা নক আউট ম্যাচ।

এই ম্যাচে জয় পেলে ওয়েস্ট ইন্ডিজ ছয় পয়েন্ট পেয়ে উঠে যাবে পরে পরের রাউন্ডে।

আর পাপুয়া নিউগিনির বিপক্ষে জয় পেলেই পরের রাউন্ডে খেলবে আফগানিস্তান।

সেক্ষেত্রে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে উগান্ডা ও পাপুয়া নিউ গিনির ম্যাচের আর কোনো গুরুত্ব থাকবে না। সূত্র : বিবিসি