ঢাকা ০৯:০৪ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ২২ জুন ২০২৪, ৮ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

নাবিকদের নিয়ে কুতুবদিয়ায় নোঙর করেছে সেই জাহাজ

  • বার্তা কক্ষ
  • আপডেট সময় : ০৩:৩৬:৪৮ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৩ মে ২০২৪
  • ৩৩ বার পড়া হয়েছে

নাবিকদের নিয়ে কুতুবদিয়ায় নোঙর করেছে সেই জাহাজ

সোমালি জলদস্যুদের হাতে ৩১ দিন বন্দি থাকার পর ১৪ এপ্রিল মুক্তি পাওয়া বাংলাদেশি জাহাজ এমভি আবদুল্লাহ ২৩ জন নাবিক নিয়ে কক্সবাজারে বঙ্গোপসাগরের কুতুবদিয়া পয়েন্টে নোঙর করেছে।

সোমবার সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে জাহাজটি কুতুবদিয়া উপকূলে পৌঁছায় বলে জানান জাহাজের মালিক কেএসআরএম গ্রুপের মিডিয়া উপদেষ্টা মিজানুল ইসলাম।

মঙ্গলবার চট্টগ্রামের সদরঘাট জেটিতে নাবিকদের পরিবারের সদস্য ও স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হবে।

জলদস্যুদের হাতে জিম্মি হওয়ার ৬৪ দিন পর পরিবারের দেখা পাবেন জাহাজটির নাবিকরা।

তাদের নিরাপদে ফিরে আসার খবরে পরিবারের সদস্যদের মধ্যে উৎসবের আমেজ বিরাজ করছে।

মিজানুল জানান, কুতুবদিয়ায় পণ্য খালাসের পর জাহাজটি চট্টগ্রাম বন্দরের উদ্দেশে ছেড়ে যাবে।

তিনি আরও বলেন, ‘আমি যতদূর জানি সব নাবিক নিরাপদ ও সুস্থ আছেন এবং পরবর্তী অগ্রগতি পরে জানানো হবে।’

৩৩ দিন জিম্মি থাকার পর গত ২৮ এপ্রিল সংযুক্ত আরব আমিরাতের আল-হামরিয়া বন্দরে ৫৫ হাজার মেট্রিক টন কয়লা খালাস করে বাংলাদেশের উদ্দেশে রওনা দেয় জাহাজটি।

জলদস্যুদের বন্দিদশা থেকে মুক্তি পাওয়ার পর ২২ এপ্রিল সন্ধ্যায় এমভি আবদুল্লাহ প্রাথমিকভাবে সংযুক্ত আরব আমিরাতের বন্দরে নোঙর করে।

মোজাম্বিক থেকে দুবাই যাওয়ার পথে সোমালি উপকূল থেকে প্রায় ৬০০ নটিক্যাল মাইল দূরে সোমালি জলদস্যুরা জাহাজটিকে জিম্মি করে নেয়। জলদস্যুরা জাহাজ ও এর নাবিকদের নিয়ন্ত্রণ নিয়ে নেয় এবং ১৩ এপ্রিল রাত পর্যন্ত তাদের আটকে রাখে।

এরপর গত ২১ এপ্রিল জাহাজটি প্রথম বন্দরের বাইরের নোঙরে পৌঁছায়।

ট্যাগস :

Write Your Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Save Your Email and Others Information

আপলোডকারীর তথ্য

সাতক্ষীরায় যুব কর্মসংস্থান সৃষ্টিতে স্থানীয় কারিগরি ও বৃত্তিমুলক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ভূমিকা শীর্ষক সংলাপ

নাবিকদের নিয়ে কুতুবদিয়ায় নোঙর করেছে সেই জাহাজ

আপডেট সময় : ০৩:৩৬:৪৮ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৩ মে ২০২৪

সোমালি জলদস্যুদের হাতে ৩১ দিন বন্দি থাকার পর ১৪ এপ্রিল মুক্তি পাওয়া বাংলাদেশি জাহাজ এমভি আবদুল্লাহ ২৩ জন নাবিক নিয়ে কক্সবাজারে বঙ্গোপসাগরের কুতুবদিয়া পয়েন্টে নোঙর করেছে।

সোমবার সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে জাহাজটি কুতুবদিয়া উপকূলে পৌঁছায় বলে জানান জাহাজের মালিক কেএসআরএম গ্রুপের মিডিয়া উপদেষ্টা মিজানুল ইসলাম।

মঙ্গলবার চট্টগ্রামের সদরঘাট জেটিতে নাবিকদের পরিবারের সদস্য ও স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হবে।

জলদস্যুদের হাতে জিম্মি হওয়ার ৬৪ দিন পর পরিবারের দেখা পাবেন জাহাজটির নাবিকরা।

তাদের নিরাপদে ফিরে আসার খবরে পরিবারের সদস্যদের মধ্যে উৎসবের আমেজ বিরাজ করছে।

মিজানুল জানান, কুতুবদিয়ায় পণ্য খালাসের পর জাহাজটি চট্টগ্রাম বন্দরের উদ্দেশে ছেড়ে যাবে।

তিনি আরও বলেন, ‘আমি যতদূর জানি সব নাবিক নিরাপদ ও সুস্থ আছেন এবং পরবর্তী অগ্রগতি পরে জানানো হবে।’

৩৩ দিন জিম্মি থাকার পর গত ২৮ এপ্রিল সংযুক্ত আরব আমিরাতের আল-হামরিয়া বন্দরে ৫৫ হাজার মেট্রিক টন কয়লা খালাস করে বাংলাদেশের উদ্দেশে রওনা দেয় জাহাজটি।

জলদস্যুদের বন্দিদশা থেকে মুক্তি পাওয়ার পর ২২ এপ্রিল সন্ধ্যায় এমভি আবদুল্লাহ প্রাথমিকভাবে সংযুক্ত আরব আমিরাতের বন্দরে নোঙর করে।

মোজাম্বিক থেকে দুবাই যাওয়ার পথে সোমালি উপকূল থেকে প্রায় ৬০০ নটিক্যাল মাইল দূরে সোমালি জলদস্যুরা জাহাজটিকে জিম্মি করে নেয়। জলদস্যুরা জাহাজ ও এর নাবিকদের নিয়ন্ত্রণ নিয়ে নেয় এবং ১৩ এপ্রিল রাত পর্যন্ত তাদের আটকে রাখে।

এরপর গত ২১ এপ্রিল জাহাজটি প্রথম বন্দরের বাইরের নোঙরে পৌঁছায়।