ঢাকা ০৪:৩০ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৩ জুলাই ২০২৪, ২৯ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

খালেদা জিয়ার ৫ বছরের জেল ১০ বছর করার অভিযোগ

  • বার্তা কক্ষ
  • আপডেট সময় : ০৮:৩৫:৪৪ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৪ জুলাই ২০২৪
  • ৩২ বার পড়া হয়েছে

বক্তব্য রাখছেন আলাল

বিএনপির যুগ্ম-মহাসচিব সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল অভিযোগ করে বলেছেন, আমরা দেখে থাকি নিম্ন আদালত থেকে যা সাজা দেয়া হয়, হাইকোর্টে সেই সাজা কমিয়ে দেয়া হয়। কিন্তু আমাদের নেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার ক্ষেত্রে সেটার ব্যতিক্রম ঘটেছে। তিনি হাইকোর্টে যাবার পর কোর্ট তাকে সাজা বাড়িয়ে দিয়ে পাঁচ বছরের সাজা ১০ বছর করেছে। এটা করার ফলে হাইকোর্টের বিচারপতিকে এই সরকার পদোন্নতি দিয়ে সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতি করেছে।

বুধবার বিকেলে জেলা বিএনপির আয়োজনে কালিবাড়ী পাবলিক ক্লাব মাঠে কেন্দ্র ঘোষিত বিএনপির চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার নিঃশর্ত মুক্তির দাবিতে এক সমাবেশে যোগ দিয়ে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এমন অভিযোগ করেন বিএনপির এই নেতা।

তিনি আরো বলেন, এই সরকারের আমলে কোন ধর্মের মানুষ নিরাপদ নয়। এটা প্রমাণিত হয়েছে। হিন্দুদের
উপর হামলা, বাড়ি ঘরে আগুন জ্বালিয়ে দেয়া, খ্রিস্টানদের গির্জায় হামলা, মুসলমানদের উপর হামলা,সঙ্গীত শিল্পীদের উপর হামলা, সাংবাদিক সাগর-রুনির হত্যাসহ আরো কতো হামলার বিচার আজও হলো না।

বিএনপির নেতা আলাল আরো বলেন, বিএনপির মুক্তিযুদ্ধের দল আর আওয়ামী লীগ হচ্ছে গ্যালারিতে বসে হাত তালি দিয়ে মুক্তিযুদ্ধের সপক্ষের দল। আমার যুদ্ধ করেছি আর আওয়ামী লীগ বসে হাত তালি দিয়েছে। এই জন্য তারা মুক্তিযুদ্ধের সপক্ষের দল। আমরা মুক্তযোদ্ধার দল।

এ সময় জেলা বিএনপির সভাপতি মির্জা ফয়সাল আমিন, ঠাকুরগাঁও-৩ আসনের সাবেক এমপি জাহিদুর
রহমানসহ জেলা ও উপজেলা পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ বক্তব্য রাখেন। বক্তারা বিএনপির চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়াকে বিদেশে উন্নত চিকিৎসার জন্য নিঃশর্ত মুক্তির দাবি জানান।

ট্যাগস :

Write Your Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Save Your Email and Others Information

আপলোডকারীর তথ্য

জনপ্রিয় সংবাদ

সরকার চাইলে কোটা পরিবর্তন করতে পারবে, হাইকোর্টের রায় প্রকাশ

খালেদা জিয়ার ৫ বছরের জেল ১০ বছর করার অভিযোগ

আপডেট সময় : ০৮:৩৫:৪৪ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৪ জুলাই ২০২৪

বিএনপির যুগ্ম-মহাসচিব সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল অভিযোগ করে বলেছেন, আমরা দেখে থাকি নিম্ন আদালত থেকে যা সাজা দেয়া হয়, হাইকোর্টে সেই সাজা কমিয়ে দেয়া হয়। কিন্তু আমাদের নেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার ক্ষেত্রে সেটার ব্যতিক্রম ঘটেছে। তিনি হাইকোর্টে যাবার পর কোর্ট তাকে সাজা বাড়িয়ে দিয়ে পাঁচ বছরের সাজা ১০ বছর করেছে। এটা করার ফলে হাইকোর্টের বিচারপতিকে এই সরকার পদোন্নতি দিয়ে সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতি করেছে।

বুধবার বিকেলে জেলা বিএনপির আয়োজনে কালিবাড়ী পাবলিক ক্লাব মাঠে কেন্দ্র ঘোষিত বিএনপির চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার নিঃশর্ত মুক্তির দাবিতে এক সমাবেশে যোগ দিয়ে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এমন অভিযোগ করেন বিএনপির এই নেতা।

তিনি আরো বলেন, এই সরকারের আমলে কোন ধর্মের মানুষ নিরাপদ নয়। এটা প্রমাণিত হয়েছে। হিন্দুদের
উপর হামলা, বাড়ি ঘরে আগুন জ্বালিয়ে দেয়া, খ্রিস্টানদের গির্জায় হামলা, মুসলমানদের উপর হামলা,সঙ্গীত শিল্পীদের উপর হামলা, সাংবাদিক সাগর-রুনির হত্যাসহ আরো কতো হামলার বিচার আজও হলো না।

বিএনপির নেতা আলাল আরো বলেন, বিএনপির মুক্তিযুদ্ধের দল আর আওয়ামী লীগ হচ্ছে গ্যালারিতে বসে হাত তালি দিয়ে মুক্তিযুদ্ধের সপক্ষের দল। আমার যুদ্ধ করেছি আর আওয়ামী লীগ বসে হাত তালি দিয়েছে। এই জন্য তারা মুক্তিযুদ্ধের সপক্ষের দল। আমরা মুক্তযোদ্ধার দল।

এ সময় জেলা বিএনপির সভাপতি মির্জা ফয়সাল আমিন, ঠাকুরগাঁও-৩ আসনের সাবেক এমপি জাহিদুর
রহমানসহ জেলা ও উপজেলা পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ বক্তব্য রাখেন। বক্তারা বিএনপির চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়াকে বিদেশে উন্নত চিকিৎসার জন্য নিঃশর্ত মুক্তির দাবি জানান।