ঢাকা ০৫:০১ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪, ২৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

শ্রমনির্ভর শিল্পের পাশাপাশি আধুনিক প্রযুক্তির পক্ষে প্রধানমন্ত্রী

  • ইউএনবি
  • আপডেট সময় : ০২:১৫:০৩ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৯ মে ২০২৪
  • ৩৪ বার পড়া হয়েছে

 

সরকার শিল্প খাতে আধুনিক প্রযুক্তি অন্তর্ভুক্ত করার পাশাপাশি শ্রমনির্ভর শিল্প প্রতিষ্ঠান দেখতে চায় বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন।

তিনি বলেন, ‘আমরা শিল্প খাতে আধুনিক প্রযুক্তি অন্তর্ভুক্ত করতে চাই। আমরা সামনের দিকে এগিয়ে যেতে চাই, পেছনে নয়। কিন্তু কর্মসংস্থানের সুযোগ যেন নষ্ট না হয়।’

রবিবার (১৯ মে) সকালে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে (বিআইসিসি) সপ্তাহব্যাপী ১১তম জাতীয় এসএমই পণ্য মেলার উদ্বোধনকালে এসব কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী।

শিল্প মন্ত্রণালয় ও এসএমই ফাউন্ডেশন যৌথভাবে এ মেলার আয়োজন করে।

তিনি বলেন, চতুর্থ শিল্প বিপ্লব ডিজিটাল পদ্ধতিতে অর্জন করা হবে।

তিনি আরও বলেন, ‘তবে এর জন্য আমাদের উদ্যোক্তা ও কর্মশক্তির প্রয়োজন হবে।’

প্রধানমন্ত্রী বলেন, পদক্ষেপ নেওয়ার সময় সবাইকে মনে রাখতে হবে যে, দেশে শ্রমনির্ভর শিল্প স্থাপন করতে হবে।

এ প্রসঙ্গে শিল্প মন্ত্রণালয় ও এসএমই ফাউন্ডেশনকে বিষয়টি খতিয়ে দেখার নির্দেশ দেন তিনি।

শেখ হাসিনা বলেন, ‘যেহেতু আমাদের জনগণের জন্য কাজের ব্যবস্থা করতে হবে, সেজন্য শ্রমনির্ভর শিল্প স্থাপনে আমাদের আরও মনোযোগ দিতে হবে।’

নতুন উদ্যোক্তা তৈরির ওপর গুরুত্বারোপ করে তিনি বলেন, তরুণরা কোনো কোর্স শেষ করেই শুধু চাকরির পেছনে ছুটবেন না।

তিনি বলেন, ‘অন্যের কর্মসংস্থান সৃষ্টির জন্য উদ্যোক্তা হন, সেই সক্ষমতা আপনাদের কাজে লাগাতে হবে।’

স্টার্টআপ কর্মসূচি এবং তাদের জন্য পৃথক বাজেটসহ সরকারের উদ্যোগের কথা উল্লেখ করেন তিনি।

সব এসএমই প্রতিষ্ঠানকে শতভাগ রপ্তানিমুখী হিসেবে গড়ে তোলার প্রতি আরও মনোযোগী হওয়ার আহ্বান জানান প্রধানমন্ত্রী।

তিনি জানান, এরইমধ্যে তিনি বিদেশে বাংলাদেশ মিশনগুলোকে তাদের অর্থনৈতিক কূটনীতি জোরদার করার নির্দেশ দিয়েছেন, যাতে তাদের স্বাগতিক দেশগুলোতে রপ্তানি পণ্য ও বাজার সম্প্রসারণে চাহিদা খুঁজে বের করা যায়।

শেখ হাসিনা বলেন, ‘আমরা উৎপাদন করতে পারি, আমাদের দক্ষ জনশক্তি আছে, যে কেউ এখানে বিনিয়োগ করতে পারে এবং পণ্য রপ্তানি করতে পারে।’

তিনি আরও বলেন, ক্ষুদ্র উদ্যোক্তাদের দেশকে এগিয়ে নেওয়ার জন্য আরও মনোযোগী হওয়া উচিত কেন না সময়ের সঙ্গে সঙ্গে তারা বড় প্রতিষ্ঠানে পরিণত হবে।

ট্যাগস :

Write Your Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Save Your Email and Others Information

আপলোডকারীর তথ্য

পবিত্র ঈদুল আজহা উদযাপনে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের নির্দেশনা

শ্রমনির্ভর শিল্পের পাশাপাশি আধুনিক প্রযুক্তির পক্ষে প্রধানমন্ত্রী

আপডেট সময় : ০২:১৫:০৩ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৯ মে ২০২৪

 

সরকার শিল্প খাতে আধুনিক প্রযুক্তি অন্তর্ভুক্ত করার পাশাপাশি শ্রমনির্ভর শিল্প প্রতিষ্ঠান দেখতে চায় বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন।

তিনি বলেন, ‘আমরা শিল্প খাতে আধুনিক প্রযুক্তি অন্তর্ভুক্ত করতে চাই। আমরা সামনের দিকে এগিয়ে যেতে চাই, পেছনে নয়। কিন্তু কর্মসংস্থানের সুযোগ যেন নষ্ট না হয়।’

রবিবার (১৯ মে) সকালে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে (বিআইসিসি) সপ্তাহব্যাপী ১১তম জাতীয় এসএমই পণ্য মেলার উদ্বোধনকালে এসব কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী।

শিল্প মন্ত্রণালয় ও এসএমই ফাউন্ডেশন যৌথভাবে এ মেলার আয়োজন করে।

তিনি বলেন, চতুর্থ শিল্প বিপ্লব ডিজিটাল পদ্ধতিতে অর্জন করা হবে।

তিনি আরও বলেন, ‘তবে এর জন্য আমাদের উদ্যোক্তা ও কর্মশক্তির প্রয়োজন হবে।’

প্রধানমন্ত্রী বলেন, পদক্ষেপ নেওয়ার সময় সবাইকে মনে রাখতে হবে যে, দেশে শ্রমনির্ভর শিল্প স্থাপন করতে হবে।

এ প্রসঙ্গে শিল্প মন্ত্রণালয় ও এসএমই ফাউন্ডেশনকে বিষয়টি খতিয়ে দেখার নির্দেশ দেন তিনি।

শেখ হাসিনা বলেন, ‘যেহেতু আমাদের জনগণের জন্য কাজের ব্যবস্থা করতে হবে, সেজন্য শ্রমনির্ভর শিল্প স্থাপনে আমাদের আরও মনোযোগ দিতে হবে।’

নতুন উদ্যোক্তা তৈরির ওপর গুরুত্বারোপ করে তিনি বলেন, তরুণরা কোনো কোর্স শেষ করেই শুধু চাকরির পেছনে ছুটবেন না।

তিনি বলেন, ‘অন্যের কর্মসংস্থান সৃষ্টির জন্য উদ্যোক্তা হন, সেই সক্ষমতা আপনাদের কাজে লাগাতে হবে।’

স্টার্টআপ কর্মসূচি এবং তাদের জন্য পৃথক বাজেটসহ সরকারের উদ্যোগের কথা উল্লেখ করেন তিনি।

সব এসএমই প্রতিষ্ঠানকে শতভাগ রপ্তানিমুখী হিসেবে গড়ে তোলার প্রতি আরও মনোযোগী হওয়ার আহ্বান জানান প্রধানমন্ত্রী।

তিনি জানান, এরইমধ্যে তিনি বিদেশে বাংলাদেশ মিশনগুলোকে তাদের অর্থনৈতিক কূটনীতি জোরদার করার নির্দেশ দিয়েছেন, যাতে তাদের স্বাগতিক দেশগুলোতে রপ্তানি পণ্য ও বাজার সম্প্রসারণে চাহিদা খুঁজে বের করা যায়।

শেখ হাসিনা বলেন, ‘আমরা উৎপাদন করতে পারি, আমাদের দক্ষ জনশক্তি আছে, যে কেউ এখানে বিনিয়োগ করতে পারে এবং পণ্য রপ্তানি করতে পারে।’

তিনি আরও বলেন, ক্ষুদ্র উদ্যোক্তাদের দেশকে এগিয়ে নেওয়ার জন্য আরও মনোযোগী হওয়া উচিত কেন না সময়ের সঙ্গে সঙ্গে তারা বড় প্রতিষ্ঠানে পরিণত হবে।